রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১২:৫৬ অপরাহ্ন

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধানের মৃত্যুতে শোক

নিউজ ডেস্ক, জাগো২৪.নেট
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২

জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান ও তথ্যপদ্ধতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে আজ ০৮-০৯-২০২২ তারিখ বৃহস্পতিবার সকাল ৬:০০ টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন। মহান সৃষ্টিকর্তা তাঁকে স্বর্গবাসী করুন। তিনি ডায়াবেটিস, কিডনিসহ নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে ব্যক্তিগত এবং জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারে পক্ষ হতে মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর গভীর শোক এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে’র অন্তিমযাত্রার সম্মানে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তিনদিনের শোক ঘোষণা এবং সকল ক্লাস বন্ধ ঘোষণা করেছে। আগামী ১১-০৯-২০২২ তারিখ রবিবার বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার একটি শোকসভার আয়োজন করেছে। মরহুমের মরদেহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে তাঁর নিজ কর্মস্থল ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ ভবনের সামনে বিশেষ সম্মান জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা মোড়ানো অবস্থায় কিছু সময় রাখা হয়।

এসময় প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ হতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। পরে একে একে শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা পরিষদ, বিভিন্ন অনুষদ ও বিভাগের পক্ষ হতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মাননীয় উপাচার্য সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদানকালে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ড. সুব্রত ছিলেন একজন শিক্ষার্থীবান্ধব, কর্মঠ, নিষ্ঠাবান, দায়িত্বপরায়ণ একজন নিবেদিত প্রাণ। তিনি যেমন মেধাবী ছিলেন তাঁর সন্তানরা এবং তাঁর দীক্ষায় শিক্ষিত শিক্ষার্থীরাও মেধাবী ও আদর্শবান হবেন নিশ্চয়ই। তাঁর দেহ চলে গেছে কিন্তু তাঁর আত্মা এবং কর্ম রয়ে গেছে এবং চিরকাল অম্লান থাকবে।

প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে ২০০৮ সালের ৭ এপ্রিল হিসাববিজ্ঞান ও তথ্যপদ্ধতি বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের পর আমৃত্যু তিনি হিসাববিজ্ঞান ও তথ্যপদ্ধতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ছাড়াও শিক্ষক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, একাধিকবার ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য, অর্থ কমিটির সদস্য, একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রমে যুক্ত ছিলেন। তিনি ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং এবং হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা বিভাগীয় প্রধান ছিলেন। তিনি অগ্নি-বীণা হলের প্রভোস্ট এবং অর্থ ও হিসাব শাখার পরিচালকের দায়িত্বও পালন করেছেন।

প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে ১৯৬৫ সালের ৩১মে নেত্রকোণা জেলার পূর্বধলা উপজেলার কালডোয়ার গ্রামের সম্ভ্রান্ত সনাতন পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা রসিক চন্দ্র দে এবং মাতা সাবিত্রী দে। প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে তাঁর স্ত্রী এবং দুই কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি ১৯৮০ সালে নেত্রকোণার পূর্বধলা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হতে প্রথম বিভাগে এস. এস. সি. পাস করেন। ১৯৮২ সালে ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজ হতে দ্বিতীয় বিভাগে এইচ.এস.সি এবং ১৯৮৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে হিসাববিজ্ঞান বিভাগে বি.কম (সম্মান) দ্বিতীয় শ্রেণিতে পাশ করেন। ১৯৮৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে হিসাববিজ্ঞান বিভাগে এম.কম দ্বিতীয় শ্রেণিতে পাশ করেন। পরে ২০০৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ (আই.বি.এস) হতে ‘Cost Effectiveness of Fertilizer Industry in Bangladesh: An Evaluation’ বিষয়ে পিএইচ.ডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

ড. সুব্রত কুমার দে বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারে গত ২৪-১১-১৯৯৩ তারিখ পটুয়াখালী সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। এরপর তিনি টাঙ্গাইলের সা’দত সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এবং ময়মনসিংহের গফরগাঁও সরকারি ডিগ্রি কলেজেও অধ্যাপনা করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | জাগো২৪.নেট

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন