শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫৫ অপরাহ্ন

স্যোশ্যাল ওয়ার্ক অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ১ম পুনর্মিলন

তাসদিকুল হাসান, জাগো২৪.নেট, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যাল থেকে
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০২২

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যোশ্যাল ওয়ার্ক অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ১ম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক।

উপাচার্য ইমদাদুল হক অ্যালামনাই এসোসিয়েশন করার উদ্দেশ্য সম্পর্কে বলেন, বছরে একবার পুনর্মিলন, আড্ডা দেওয়াই এলামনাই এসোসিয়েশনের একমাত্র উদ্দ্যেশ্য নয় বরং সকল ধরনের উন্নয়নে অবদান রাখা। যেমন, ল্যাবরেটরি করা, যারা টাকার অভাবে পড়াশোনা করতে পারেনা তাদের কে সাহায্য করা,বিভাগের সহায়তা করা, বিভাগের সাথে নেটওয়ার্কিং করা, একটা সেতুবন্ধন করা,নিষ্ঠার সাথে কাজ করা। তিনি আরও বলেন, যে বিভাগের এলামনাই এসোসিয়েশন নাই সেই ডিপার্টমেন্ট নোঙর ছোট হয়।

এলামনাই গঠনের প্রকৃত উদ্দেশ্য যাতে সাধিত হয়। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে লাইব্রেরি অটোমেশন এর জন্য কাজ করছে বিশ্ববিদ্যালয় আরও বিভিন্ন প্রসঙ্গ আলোচনা করেন। এবার ৬০জন সাব ইন্সপেক্টর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নির্বাচিত হয়েছে সে বিষয়ে সাধুবাদ জানিয়েছে । বিভিন্ন জব সেক্টরে জগন্নাথ এর গ্র্যাজুয়েটদের পদচারণা দেখে গর্ববোধ করলেন।

বর্তমান শিক্ষা কারিকুলামের থিওরি এবং প্র্যাক্টিক্যালের মধ্যে প্রচুর গ্যাপ রয়েছে, তাই যুগোপযোগী সিলেবাস গড়তে কর্মরত প্রাক্তন শিক্ষার্থীদেরকে প্রাক্টিকাল সিলেবাস গঠনের সহায়তা করার অনুরোধ জানায়। ৩৬টা ডিপার্টমেন্ট ও ২টা ইনস্টিটিউটের বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা রকম বাধা-অসুবিধা পেরিয়ে শিক্ষকমন্ডলী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ অনেক ভালো ভালো কাজ কর যাচ্ছে সে বিষয়ে সাধুবাদ জানান। চাকরি নিয়ে না ভেবে কিভাবে চাকরি তৈরি করা যায়, পদ পদবীর চিন্তা ছেড়ে কিভাবে কাজ করা যায় সে বিষয়ে ভাবার আহ্বান করেছেন। এটাই এলামনাই এসোসিয়েশন এর সাফল্য। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে কি দিলাম সেটা নিয়ে চিন্তা করার সময় এসেছে। আমরা সরকারের ট্যাক্সের টাকায় পড়াশোনা করছি তাই এটাকে মূল্যায়ন করা উচিৎ।

এসময় স্যোশ্যাল ওয়ার্ক অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান মিলনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইমরান খান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোঃ আবুল হোসেন এবং সমাজকর্ম বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. রাজিনা সুলতানা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল, বিভাগীয় শিক্ষক, প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | জাগো২৪.নেট

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন