শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ে অনলাইন পণ্যমেলা নারী উদ্যোক্তাদের

আবু তারেক বাঁধন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, জাগো২৪.নেট, ঠাকাুরগাঁও
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২ জুলাই, ২০২২

ঠাকুরগাঁওয়ের নারী উদ্যোক্তা সানজিদা ইসলাম সেতু অনলাইনে পণ্যে ক্রেতাদের বিশ্বাস বাড়াতে অনলাইন পণ্যমেলার আয়োজন করেছে । শহরের জেলা পরিষদ শিশু পার্কের ভেতরে শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে এ মেলার উদ্বোধন করা হয়, যা চলবে শনিবার পর্যন্ত। এই দুই দিন বিকেল ৪টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলার ২৫টি স্টলে নিজেদের তৈরি পণ্য বিক্রি করবেন নারী উদ্যোক্তারা।

নারী উদ্যোক্তা ও ঠাকুরগাঁও অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবারের নির্বাহী পরিচালক সানজিদা ইসলাম সেতু জানান, যেসব নারী উদ্যোক্তা এত দিন ফেসবুক পেইজে বিজ্ঞাপন দিয়ে পণ্য বিক্রি করতেন, তাদের উৎসাহ দিতে এবং ক্রেতাদের নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রতি বিশ্বাস জোগাতে এমন আয়োজন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘গত তিন বছর যাবৎ অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবার নামের একটি ফেসবুক গ্রæপ থেকে নারীদের উদ্যোক্তা হতে উৎসাহিত করে আসছি। নারীদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করতে এমন প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছি। এ কাজে আমাকে সহযোগিতা করেছেন অ্যাডমিন প্যানেলের আরও সাত নারী৷

‘তবে জেলার অনলাইন নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের গুণগত মান ভালো হওয়া সত্তে¡ও অনেক ক্রেতার বিশ্বাস অর্জন সম্ভব হয়নি। তাই ক্রেতাদের বিশ্বাস অর্জন করতে নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহ জোগাতে এমন মেলার আয়োজন করেছি।’

বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত হাজার হাজার দর্শনার্থীর ভিড় দেখা গেছে মেলা চত্বরে। স্টলগুলো ঘুরে দেখা গেছে, নারী উদ্যোক্তাদের নিজ হাতে বানানো পাটের তৈরি ব্যাগসহ শিশুদের খেলনা। এ ছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র এমনকি নারীদের নিজ হাতে তৈরি খাবারও রয়েছে স্টলগুলোতে।

আয়মান হস্তশিল্পের পরিচালক নারী উদ্যোক্তা মরিয়ম মেরি নিজ হাতে বানানো পাটের ব্যাগ ও শিশুদের খেলনা বিক্রি করছেন।

তিনি জানান, এ যাবৎ অনলাইনে এক লাখ টাকার পণ্য বিক্রি করেছেন তিনি। তার পণ্য এত দিন অনলাইনে বিক্রি হতো, অনেক ক্রেতা গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এখন মেলায় এসে পণ্য দেখছেন এবং কিনছেন।

এ মেলা ক্রেতাদের বিশ্বাস অর্জন করবে বলে আশা করেন এ নারী উদ্যোক্তা।মেলা দেখতে এসে নিজের বলেন ক্রেতা নিলিমা আক্তার।

তিনি বলেন, ‘এই প্রথম অনলাইনে নারী উদ্যোক্তাদের পণ্য নিয়ে মেলার আয়োজন করা হয়েছে, যা সত্যি খুবই গুরুত্বপূর্ণ অর্থ বহন করে আমার কাছে। আমি এখানে এসে দেখেছি, জেলার নারীরা কতটা মেধাবী। এমন আয়োজন প্রতি ছয় মাস অন্তর হলে নারীরা আরও অনুপ্রাণিত হবে।

সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট অরুনাংশু দত্ত টিটো মেলা পরিদর্শন করে বলেন, ‘ঠাকুরগাঁওয়ের নারী উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে এ মেলা নারীদের উৎসাহ জোগাবে এবং তাদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করবে। উপজেলা পরিষদ থেকে এসব উদ্যোক্তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।’

নারী উদ্যোক্তাদের অনলাইন পণ্যমেলা অনলাইন পণ্যমেলা উদ্বোধন ও পরিদর্শন করেন ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ প্রশাসক মো. সাদেক কুরাইশী। তিনি বলেন, ‘অত্যন্ত চমৎকার সব পণ্য তৈরি করেন এ জেলার নারীরা। অনলাইনে তাদের সক্রিয়তা রয়েছে। এখন মেলার আয়োজন করে তাদের উদ্দেশ্য আরও বিস্তৃত হয়েছে। নারী উদ্যোক্তারা এমন আয়োজন করে নিশ্চয়ই সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। তাদের সহযোগিতা করে এগিয়ে নিতে হবে।’জেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও তাদের সাধ্যমতো সহযোগিতা করা হবে বলে জানান জেলা পরিষদ প্রশাসক।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | জাগো২৪.নেট

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন